আওয়ামীলীগ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিলেন সেতুমন্ত্রীর ভাই কাদের মির্জা!

আবদুর রহিম,কোম্পানীগঞ্জ প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই ও বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা আওয়ামী লীগ থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন।

বুধবার (৩১ মার্চ) দুপুর ১২ টা ৪০ মিনিটের সময় ফেসবুক লাইভে এসে তিনি এ ঘোষণা দেন। আবদুল কাদের মির্জা নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ছিলেন।

বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার তার নিজের ফেসবুক আইডি থেকে এক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন- আমি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করলাম। ভবিষ্যতে কোনো রকম কোনো জনপ্রতিনিধি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করব না। ভবিষ্যতে আমি কোনো রকম কোনো দলীয় পদ-পদবির দায়িত্ব নেব না আবদুল কাদের মির্জা,মেয়র বসুরহাট পৌরসভা।

এর আগে তিনি ফেসবুক লাইভে বলেন-আমি সব দুর্নীতি, অপরাজনীতির হোতা এবং অনিয়মকারীদের বিরুদ্ধে কথা বলি বলে সবার কাছে নিন্দনীয় হয়ে গেছি। যে দলের ভিতর সম্মান নাই সেখানে আমি থাকবো না। আমি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদের সদস্য হয়েছি, সেখানে সদস্য থেকেই কাজ করবো।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনি একসাথে না পারলেও দিরে দিরে প্রাণের সংগঠনে লুকিয়ে থাকা দুর্নীতিবাজদের লাগাম টেনে ধরুন। যারা বেশি অনিয়মকারী তাদেরকে দল থেকে বের করে দিন। আপনি মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স ঘোষণা করেছেন, কিন্তু আপনার প্রশাসন মাদককে সহযোগিতা করছে। আর এখনি ঘোষণা দিন যে, সংসদ সদস্যসহ যে কোনো প্রতিনিধি বা পদে আসতে মাদক ও নারীর সাথে থাকতে পারবে না। ডোব টেস্ট করে চাকরিতে যোগদান করান।

ঢাকাতে সব গুলো রাজনৈতিক দল এক হয়ে গেছে দাবি করে আবদুল কাদের মির্জা বলেন, দিনের বেলা আলাদা রাজনীতি করলেও রাতের বেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি মিলে হোটেলে একসাথ হয়ে যায়। এরা ‘জাতীয় অপকর্ম পার্টি’গঠন করেছে। এদের বিরুদ্ধে এখনি ব্যবস্থা না নিলে দলের ভিতর এক জনও ত্যাগি ও আওয়ামী প্রেমি থাকবেনা।

ফেসবুকে কমেন্ট করুন -আপনার মতামত দিন