ডায়াবেটিস থাকলে যেসব ফল খাওয়া যাবে

ডায়াবেটিস রোগীদের সবসময়ই খাবারের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হয়। কারণ এমন অনেকে ধরনের খাবার আছে যেগুলো রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়িয়ে দেয়। তেমনি ফল শরীরের জন্য উপকারী হলেও কিছু কিছু ফল রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। যেমন আম, লিচু, কলার মতো ফল জিআই ইন্ডেক্সের উপর দিকের তালিকায় পড়ে। তাই এই ফলগুলি ডায়াবেটিস রোগীদের এড়িয়ে য়াওয়া ভালো।

আবার কিছু ফল ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য উপকারীও। আমেরিকান ডায়াবেটিস অ্যাসোসিয়েশনের তথ্য অনুযায়ী, এমন কিছু উপকারী ফল আছে যাতে থাকা ভিটামিন এবং ফাইবার টাইপ টু ডায়াবেটিস দূরে রাখতে সাহায্য করবে। ডায়াবেটিস রোগীরা যেসব ফল নির্দ্বিধায় খেতে পারেন-

 

নাশপাতি: অনেকেই মনে করেন, নাশপাতির কোনও গুণ নেই। কিন্তু সেটা ঠিক নয়। নাশপাতিতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার রয়েছে যা ডায়াবেটিক রোগীদের জন্য বেশ উপকারী।

Food background. Assortment of colorful ripe tropical fruits. Top view

আপেল: এখন সারা বছরই কোনও না কোনও জাতের আপেল পাওয়া যায়। আপেলের গুণাগুণ নিয়ে আলাদা করে বলার কিছু নেই। এতেও প্রচুর ফাইবার রয়েছে। একটি আপেল খেলে পেট অনেকক্ষণ ভর্তিও থাকবে। ফাইবারের পাশাপাশি কিছু পরিমাণে ভিটামিন সি-ও রয়েছে এই ফলে। ডায়াবেটিস রোগীরা নিয়মিত এই ফলটি খেতে পারেন।

কিউই : কিউই ফলে পর্যাপ্ত পরিমাণে পটাশিয়াম এবং ভিটামিন সি রয়েছে। এই ফলটি খেলে ডায়াবেটিস রোগীরা উপকার পাবেন।

পিচ: ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য পিচ ফল দারুণ উপকারী। এতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার রয়েছে। শরীরের বিপাক হার বাড়াতে সাহায্য করে পিচ।

জাম বা অন্য বেরি: জাম এবং সব ধরনের বেরিতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট রয়েছে যা শরীরের পক্ষে খুব ভালো। বেরি ড্রাই ফ্রুট হিসেবেও খেতে পারেন।